Connect with us

Cric Gossip

Yuzvendra Chahal: চাহাল কাণ্ডে নতুন মোড়, চাহালকে বেঁধে রাখার অপরাধে দুই প্রাক্তন ক্রিকেটারকে জেরা করতে চায় ইংল্যান্ড!!

Advertisement
Advertisement

অবশেষে যুজবেন্দ্র চাহাল কাণ্ডে নতুন পথের সৃষ্টি করতে চলেছেন ইংল্যান্ড ক্লাব। একজন ক্রিকেটারকে হেনস্তা করার অপরাধে জড়িত ক্রিকেটারদের জেরা করতে চায় ইংল্যান্ড। ঘটনার দীর্ঘ ১১ বছর পর সাংবাদিকদের সামনে মুখ খুলে ছিলেন ভারতীয় ক্রিকেটার যুজবেন্দ্র চাহাল। তিনি বলেন, ২০১১ টি-টোয়েন্টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের রাতে তাঁকে মুখে সেলোটেপ লাগিয়ে একটি ঘরে বেঁধে রেখে গিয়েছিলেন অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এবং জেমস ফ্র্যাঙ্কলিন।

Advertisement

তবে এখানেই থেমে থাকেননি যুজবেন্দ্র চাহাল। তিনি তাঁর এই নতুন অভিজ্ঞতায় বলেছিলেন, ‍‘‍‘২০১১ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার পরে চেন্নাইয়ের হোটেলে অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস প্রচুর ফলের রস খেয়ে (অর্থাৎ মদ্যপ অবস্থায়) (বলে হাসেন চহাল) এবং জেমস ফ্র্যাঙ্কলিন আমার হাত-পা, মুখ বেঁধে বলে এ বার বাঁধন খুলে মুক্ত হতে হবে তোমাকে। আমাকে ঘরে বন্ধ করে রেখে ওরা পার্টি করতে চলে যায়।’’যুজবেন্দ্র চাহাল আরো যোগ করেছিলেন, ‍‘‍‘পার্টি শেষ হয় সকালে। সাফাই কর্মীরা আমার বাঁধন খুলে মুক্ত করে। জিজ্ঞাসা করেন, কতক্ষণ এ ভাবে পড়ে ছিলাম। আমি বলি, সারা রাত ধরে এ ভাবেই ছিলাম।

সংবাদমাধ্যমে এই খবর ছড়িয়ে পরতেই এবার সজাগ হয়ে বসেছে ইংল্যান্ডের ক্লাব। এ বার সেই ঘটনা নিয়ে ফ্র্যাঙ্কলিনকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চলেছে ডারহাম কাউন্টি। ফ্র্যাঙ্কলিন এই মুহূর্তে ডারহামের কোচ। তাই ঘটনার পুঙ্খানুপুঙ্খ সত্যতা যাচাই করে নিতে চায় ইংল্যান্ডের স্বনামধন্য ক্লাবটি। চাহাল তার বক্তব্যে সর্বশেষে যোগ করেছিলেন, ‘সাইমন্ডস বা ফ্র্যাঙ্কলিন কেউই সেই ঘটনার জন্য এখনও ক্ষমা চাননি।’ তাই চাহালের বক্তব্যের সত্যতা যাচাই করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন ইংল্যান্ডের ক্লাবটি।

Advertisement

#Trending

More in Cric Gossip