Cric GossipCricket News

IND vs PAK: পাকিস্তানের জয়ে উদ্যম সেলিব্রেশন, গ্রেপ্তার হলেন রাজস্থানের স্কুল শিক্ষিকা

নিজের হোয়াটসঅ্যাপ স্ট্যাটাস বদলে ফেলেন তিনি। সেখানে লেখেন, "অবশেষে আমরা জিতেছি"। তার এমন কর্মকাণ্ডে রীতিমত অবাক হয়েছে ভারতের সাধারণ নাগরিকরা। ভারতে বাস করে পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন করছিলেন নাফিজা নামে ওই স্কুল শিক্ষিকা।

Advertisement

গত রবিবার ভারত পাকিস্তানের ম্যাচ শেষে ভারতের অভ্যন্তরে এমন কাণ্ড ঘটেছে। পাকিস্তানের জয়ে আনন্দে ফেটে পড়েছেন ভারতীয় এক স্কুল শিক্ষিকা। গত রবিবার ভারতের বিরুদ্ধে ১০ উইকেটে ম্যাচ জেতে পাকিস্তান। সাথে সাথে রাজস্থানের এক স্কুল শিক্ষিকা হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে পাকিস্তানের জয়ের সেলিব্রেশন করেন। এমনকি নিজের হোয়াটসঅ্যাপ স্ট্যাটাস বদলে ফেলেন তিনি। সেখানে লেখেন, “অবশেষে আমরা জিতেছি”। তার এমন কর্মকাণ্ডে রীতিমত অবাক হয়েছে ভারতের সাধারণ নাগরিকরা। ভারতে বাস করে পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন করছিলেন নাফিজা নামে ওই স্কুল শিক্ষিকা।

Advertisement

সূত্রের খবর, নাফিজা নামের ওই স্কুল কর্মী উদয়পুর নির্জা মোদি প্রাইভেট স্কুলের শিক্ষিকা। দীর্ঘদিন ধরে কর্মরত রয়েছেন ওই স্কুলের সাথে। ভারত পাকিস্তান ম্যাচে পাকিস্তান ভারতকে হারানোর পর তিনি নিজের খুশি ধরে রাখতে পারেননি। সাথে সাথে সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের খুশির বহিঃপ্রকাশ করেন তিনি। জানা গেছে, আম্বা মাতা পুলিশ স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত অফিসার দলপত সিং গতকাল গ্রেপ্তার করেছেন নাফিজা নামে ওই স্কুল শিক্ষিকাকে। তার নামে দেশদ্রোহীতার জন্য ১৫৩ ‘বি’ ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। গ্রেপ্তার করার পর পরই ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয় ওই স্কুল শিক্ষিকাকে। বর্তমানে তিনি পুলিশ কাস্টডিতে রয়েছেন।

Advertisement

ভারতীয় নাগরিক হয়ে ভারতের পরাজয়ে আনন্দে উৎফুল্ল হওয়ার পর স্কুল কর্তৃপক্ষ চাকরি থেকেও বরখাস্ত করেছেন ওই স্কুল শিক্ষিকাকে। সূত্রের খবর অনুসারে, রাজস্থান সরকার এ বিষয়ে কঠোরভাবে আইন প্রণয়নের অনুমতি দিয়েছে পুলিশ প্রশাসনকে। তাছাড়া, গত রবিবার ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ শেষে যেসব ক্রিকেটপ্রেমীরা বাজি পুড়িয়েছিলেন তাদের বিরুদ্ধেও কঠোর আইন আনতে চলেছে ভারত সরকার। জানা গেছে, সেইসব আনন্দ প্রিয় ক্রিকেটপ্রেমীদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার আরোপ লাগিয়ে বিচার ব্যবস্থা প্রণয়ন করার অনুমতি দিয়েছে প্রশাসন। যদিও গ্রেপ্তার হওয়ার পর ওই স্কুল শিক্ষিকা নিজের ভুল স্বীকার করেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কিন্তু তাতেও শাস্তি কোনরকম কমেনি রাজস্থানের ওই স্কুল শিক্ষিকার জন্য।

Related Articles

Back to top button