Cricket NewsIndian Cricket Team

অস্ট্রেলিয়ার অহংকারকে মাটিতে মেশাল টিম ইন্ডিয়, ঐতিহাসিক জয় পেল ভারত

৩২৮ রান তাড়া করে ক্যাঙ্গারুর দর্পচুর্ণ করল ভারত (India)। ঐতিহাসিক টেস্ট (Test) সিরিজ জয় ভারতের। তাও আবার বিরাট (Virat Kohli) সহ বেশ কয়েকজন প্রথম সারির খেলোয়ারকে ছাড়াই। এই জয়কে এক কথায় বলা যায়, সিংহের গুহায় ঢুকে সিংহ বধ। অস্ট্রেলিয়ার (Australia) ব্রিসবেনে ৩২ বছরের কোনও টেস্ট ম্যাচ হারেনি। আর এই মাঠেই ভারত কোনওদিনই জেতেনি। এবার সেই রেকর্ডকেই চূর্ণ করল বিরাটহীন রাহানে বাহিনী।

এই জয়ের সাথে সাথে বর্ডার-গাভাসকর ট্রফি দখলে রাখল ভারত। ঐতিহাসিক এই জয়ের পিছনে সবচেয়ে বড় অবদান রয়েছে ভারতীয় তরুণ তুর্কিদের। ম্যাচের পঞ্চম দিনে শুভমান ও পন্থের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের দৌলতে দর্পচুর্ণ হল অজিদের। টেস্টের পঞ্চম বা শেষ দিনে রাহানে বাহিনীর দরকার ছিল ৩২৪ রান। যা এই উইকেটে সহজ ছিল না। তার ওপর আবার ছিল বৃষ্টি। পঞ্চম দিনের অষ্টম ওভারেই মাত্র সাত রানে ফিরে যান রোহিত শর্মা।

এরপর দরকার ছিল একটা ভাল জুটির। আর সেটা পুষিয়ে দিলেন গিল ও পূজারা। একজন আক্রমণাত্মক ব্যাটিং আর অন্যজন অভিজ্ঞতায় ভরপুর ক্লাসিক ব্যাটিং। আর এই আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করে লাঞ্চের আগেই চলতি সিরিজের দ্বিতীয় অর্ধশত রান করে ফেলে গিল। যত সময়ে যাচ্ছিল, ততই তাঁর খেলাতে পরিণতর ছাপ স্পষ্ট হচ্ছিল। লাঞ্চের পরে আবার যখন শুরু করেন গিল, পুজারা, তখন সবার মনে হচ্ছিল, কেরিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি পেয়েই যাবেন গিল। ঠিক তখনই ৯১ রানে আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরলেন গিল।

এরপর ব্যাট করতে নামেন রাহানে। কিন্তু রানের গতি বাড়াতে গিয়ে ২২ বলে ২৪ রান করে আউট হন ভারতের বর্তমান অধিনায়ক। এরপর নামেন পন্থ। পুরো টি২০-র মেজাজে ব্যাট করতে শুরু করেন পন্থ। অপরদিকে ৫৬ রান করে আউট হন পূজারা। এরপর বেশিক্ষণ টিকে থাকতে পারেননি মায়েঙ্ক আগারওয়াল। তখনই একটু চাপে পড়ে ভারত। তবে শেষমেশ তিন উইকেটে জয় পেয়ে সিরিজ জিতে নিল টিম ইন্ডিয়া।

আরও পড়ুন

Back to top button