Cricket NewsInternational Cricket

Mohammad Hafeez: ক্রিকেট জগতকে বিদায় জানালেন পাক ক্রিকেটার মোহাম্মদ হাফিজ!

২০২০ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে শেষ টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলেছিলেন তিনি। সেই সিরিজে পাকিস্তানের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন মোহাম্মদ হাফিজ। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে তার বিদায় পাকিস্তান ক্রিকেটের জন্য অত্যন্ত ক্ষতি বলে মনে করছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা।

Advertisement

সময়ের স্রোতে গা ভাসিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নিলেন পাকিস্তানের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ হাফিজ। ২০১৮ সালে টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় জানান তিনি। আর এবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সব ফরম্যাট থেকে অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করলেন অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার। ৪১ বছর বয়স্ক মোহাম্মদ হাফিজ পাকিস্তানের অন্যতম সেরা ক্রিকেটারদের মধ্যে একজন। ২০০৩ সালে জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। তারপর দেশের জার্সিতে একের পর এক বিধ্বংসী ইনিংস খেলেছেন পাকিস্তানি এই ক্রিকেটার।

Advertisement

২০১৮ সালে টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর পর ২০২০ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলার আগ্রহ প্রকাশ করেন মোহাম্মদ হাফিজ। তবে ২০১৯ সালে ওডিআই বিশ্বকাপ খেলার জন্য ডাক পান অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার। লর্ডসের স্টেডিয়ামে নিজের ক্যারিয়ারের শেষ ওডিআই ম্যাচ খেলেছিল হাফিজ। এরপর করোনা মহামারীর জনিত কারণে ২০২০ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত করতে বাধ্য হয় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। তবে মোহাম্মদ হাফিজ আশায় ছিলেন, দেশের জার্সিতে শেষ বিশ্বকাপ খেলার। আর অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তান স্কোয়াডে সুযোগ হয়ে যায় তার। বিশ্বকাপের মঞ্চে অস্ট্রেলিয়ার কাছে পরাজিত হয় সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নেয় পাকিস্তান। তবে সেই যাত্রার উল্লেখযোগ্য সঙ্গী ছিলেন মোহাম্মদ হাফিজ।

Advertisement

নিজের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কেরিয়ারে ৫৫টি টেস্ট খেলেছেন হাফিজ। ওয়ান ডে ফর্ম্যাটে খেলেছেন ২১৮টি। এছাড়াও ১১৯টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। সব ফর্ম্যাট মিলিয়ে হাফিজের ঝুলিতে রয়েছে ১২ হাজার ৭৮০ রান। নিজের কেরিয়ারে মোট ৩২ বার প্লেয়ার অফ দ্য ম্যাচের অ্যাওয়ার্ড জিতেছেন। যা পাকিস্তানের ক্রিকেট ইতিহাসে চতুর্থ সর্বােচ্চ। হাফিজের আগে এই তালিকায় রয়েছেন শাহিদ আফ্রিদি (৪৩), ওয়াসিম আক্রম (৩৯), ইনজামাম উল হক (৩৩)। তাছাড়া মোহাম্মদ হাফিজ সিরিজ সেরা হয়েছেন ৯ বার।

২০২০ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে শেষ টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলেছিলেন তিনি। সেই সিরিজে পাকিস্তানের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন মোহাম্মদ হাফিজ। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে তার বিদায় পাকিস্তান ক্রিকেটের জন্য অত্যন্ত ক্ষতি বলে মনে করছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা।

Related Articles

Back to top button