Cricket NewsIndian Cricket TeamInternational Cricket

Shardul Thakur: জোহানেসবার্গে শার্দুলের ৭ উইকেটে রেকর্ডের ছড়াছড়ি

শার্দুল ঠাকুরের পূর্বে হরভজন সিং দক্ষিণ আফ্রিকায় সাত উইকেট পেয়েছিলেন। ভাজ্জির ৭/১২০ সৌজন্যে কেপটাউনে সেই টেস্ট ড্র করেছিল ভারত।শার্দূল ঠাকুর ভারতের প্রথম পেস বোলার হিসাবে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ইনিংসে সাত উইকেট নেওয়ার রেকর্ড করলেন।

Advertisement

শার্দুল ঠাকুরের ‘লর্ড’ পদবী যে কতটা সার্থক, তা আরো একবার প্রমান করলেন তিনি। গতকাল জোহানেসবার্গে ভারতের ত্রেতা হয়ে উঠলেন শার্দুল ঠাকুর। প্রায় হাতছাড়া হওয়া ম্যাচকে পুনরায় হাতের মধ্যে নিয়ে আসলেন ভারতীয় এই অলরাউন্ডার। জোহানেসবার্গে যখন ভারতের প্রথম শ্রেণীর বোলাররা একের পর এক ব্যর্থ হয়েছেন ঠিক সেই মুহুর্তে জ্বলে উঠেছিলেন শার্দুল ঠাকুর। নিজের ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ তম টেস্ট ম্যাচে ৭ উইকেট দখল করে ভারতীয় ক্রিকেট ইতিহাসে একাধিক রেকর্ড নিজের নামে করে ফেললেন শার্দুল ঠাকুর (Shardul Thakur)

Advertisement

শার্দূল ঠাকুর (Shardul Thakur) একাই ম্যাচের রং বদলে দিয়েছেন। ৬১ রানে ৭ উইকেট তুলে নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম ইনিংস থামিয়ে দিয়েছেন ২২৯ রানে। ডিন এলগারের টিম দক্ষিণ আফ্রিকা মাত্র ২৭ রানের লিড নিতে পেরেছে। শার্দূলের পরিসংখ্যান বলছে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট ক্রিকেটে এটাই কোনও ভারতীয় বোলারের পক্ষে সেরা পরিসংখ্যান। শার্দুল ঠাকুর এর আগে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটেও কখনো সাত উইকেট পাননি। প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে (রঞ্জি ট্রফিতে)২০১৬ সালে শার্দূল মুম্বইয়ের হয়ে খেলতে নেমে বাংলার বিরুদ্ধে ৬ উইকেট পান ৩১ রানের বিনিময়ে। অথচ দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে তাবড় তাবড় বোলারদের পেছনে ফেলে ৭ উইকেট নিজের নামে লেখালেন ঠাকুর।

Advertisement

শার্দুল ঠাকুরের পূর্বে হরভজন সিং দক্ষিণ আফ্রিকায় সাত উইকেট পেয়েছিলেন। ভাজ্জির ৭/১২০ সৌজন্যে কেপটাউনে সেই টেস্ট ড্র করেছিল ভারত।শার্দূল ঠাকুর ভারতের প্রথম পেস বোলার হিসাবে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ইনিংসে সাত উইকেট নেওয়ার রেকর্ড করলেন। এর আগে জাভাগল শ্রীনাথের (Javagal Srinath) সেরা পরিসংখ্যান ছিল। ২০০১ সালের নভেম্বরে পোর্ট এলিজাবেথে ৭৬ রানে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন। এক নজরে দেখে নিন শার্দুল ঠাকুরের ৭ উইকেট-

® শার্দূল ঠাকুর প্রথম দিনেই প্রোটিয়া ওপেনার ও অধিনায়ক ডিন এলগারের (২৮) উইকেট তুলে নিয়েছেলিনে। এদিন তুলে নিলেন ক্রিজে জমে যাওয়া কিগান পিটারসেন (৬২) ও রাসি ফান ডার ডাসেন (১), তেম্বা বাভুমা (৫১), কাইল ভেরিন (২১), মার্কো জানসেন (২১) ও লুঙ্গি নিদিকে (০)।

Related Articles

Back to top button