Cricket NewsIndian Cricket Team

‘২ কিমি দৌড়ানোর’ পরীক্ষায় ডাহা ফেল করলেন ভারতীয় দলের এই ৬ প্লেয়ার

খেলা মানেই ফিটনেস। এখন কথা যদি হয় ক্রিকেটের তবে ফিটনেসের গুরুত্ব কতটা তা বলার অপেক্ষা রাখে না। সম্প্রতি বিসিসিআই-এর নতুন 2 KM ফিটনেস পরীক্ষায় ব্যর্থ হয়েছেন সাঞ্জু স্যামসন, ঈশান কিষাণ, নীতীশ রত্ন, রাহুল তেওয়াতিয়া, সিদ্ধার্থ কাউল এবং জয়দেব উনাদকাট। আর এই পরীক্ষায় ফেল হবার কারনেই তাঁরা সরাসরি ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ থেকে বাদ পরেছেন। যদিও বিসিসিআই এর বিবৃতি অনুযায়ী তাঁদের আরেকটি পরীক্ষা করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

বিসিসিআই সম্প্রতি আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় খেলোয়াড়দের ফিটনেস স্তর বিচার করার জন্য আরেকটি 2KM পরীক্ষা চালু করেছে। টাইমস অফ ইন্ডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী সঞ্জু স্যামসন, ঈশান কিষাণ, নীতীশ রত্ন, রাহুল তেওয়াতিয়া, সিদ্ধার্থ কাউল এবং জয়দেব উনাদকাট এই সপ্তাহে বাঙ্গালোরে নাশ্যানাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমি অনুষ্ঠিত এই পরীক্ষায় ব্যর্থ হয়েছেন।”যেহেতু এটি একটি নতুন ধরনের ফিটনেস পরীক্ষা, তারা সবাই কিছু সময়ের ব্যাবধানে এই টেস্ট ক্লিয়ার করার দ্বিতীয় সুযোগ পাবে। যাইহোক, যদি তারা এটা টেস্টে উত্তীর্ণ হতে ব্যর্থ হন, তাহলে তাঁরা ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচটি টি টয়েন্টি এবং তিনটি ওয়ানডে নিয়ে গঠিত আসন্ন সাদা বলের সিরিজে আদেও নির্বাচিত হবেন কিনা সেই বিষয়ে ঘোর সন্দেহ হয়েছে” টিওআই এর সূত্র অনুযায়ী।

ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সীমিত ওভারের সিরিজ এবং এ বছরের শেষের দিকে ভারতে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য প্রায় ২০ জন অড ক্রিকেটারের কয়েকটি ফিটনেস পরীক্ষা করা হয়। এই পরীক্ষাগুলির মধ্যে ছিল বর্তমানে বিখ্যাত ইয়ো-ইয়ো টেস্ট এবং নতুন ‘২ কিলোমিটার দৌড়ানো’ ফিটনেস পরীক্ষা।”এই পরীক্ষায় একজন ব্যাটসম্যান, উইকেটরক্ষক বা স্পিনারকে আট মিনিট ৩০ সেকেন্ডের মধ্যে দুই কিলোমিটার দূরত্ব সম্পন্ন করতে হয়, অন্যদিকে একজন ফাস্ট বোলারের জন্য বেঞ্চমার্ক আট মিনিট ১৫ সেকেন্ড। ছয়জন খেলোয়াড় এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে ব্যর্থ হয়েছে। কিছু খেলোয়াড় রান সম্পন্ন করতে পারেননি” সূত্রানুযায়ী।

সূত্রটি আরো প্রকাশ করেছে যে ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং কোচ রবি শাস্ত্রী ইয়ো-ইয়ো পরীক্ষার পাশাপাশি ভবিষ্যতে নির্বাচনের জন্য এই নতুন ‘২ কিলোমিটার দৌড়ানো’ পরীক্ষাটিও বাধ্যতামূলক বলে নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button