Cricket

স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য স্বাস্থ্য সরঞ্জাম ও কিট বিলি করবেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সাধারণ ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এসেছেন বর্তমান বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তিনি তার নামে ‘সৌরভ গাঙ্গুলী ফাউন্ডেশন’ সংক্ষেপে এসজিএফ চালু করেছেন। এসজিএফ গরিবদের খাওয়ানোর জন্য বেলুড় মঠে চাল সরবরাহ করবে এবং প্রতিদিন ৫০০০ জন মানুষকে খাওয়ানোর জন্য ইস্কন এর সাথে চুক্তি করেছে। এসজিএফ ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘের সাথে নিবিড়ভাবে কাজ করবে অভাবী লোকদের খাবারের দিক থেকে সরবরাহ করার জন্য। এছাড়াও এসজিএফ এর স্বেচ্ছাসেবকরা প্রয়োজনীয়তা বুঝতে এবং সেই অনুযায়ী তাদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করার জন্য স্থানীয় অনাথ আশ্রম এবং বৃদ্ধাশ্রম বাড়িগুলি পরিদর্শন করছেন।

ইসকনের কলকাতা কেন্দ্র বলেছে যে গাঙ্গুলি তাদের প্রতিদিন ১০,০০০ মানুষকে খাওয়ানোতে সহায়তা করছেন। গাঙ্গুলি শনিবার ইসকন সফর‌ও করেছেন। “ইসকন কলকাতা থেকে আমরা প্রতিদিন ১০,০০০ লোকের জন্য খাবার রান্না করছিলাম। আমাদের প্রিয় সৌরভ দা এগিয়ে এসেছেন এবং তাঁর সমস্ত সমর্থন বাড়িয়ে দিয়েছেন এবং অনুদান দিয়েছেন, যা প্রতিদিন আমাদের ক্ষমতা দ্বিগুণ করে তুলতে সক্ষম করে তোলে, “রাধারমন দাস কলকাতা কেন্দ্রের ইসকন-এর মুখপাত্র ও সহ-সভাপতি এক সংবাদসংস্থাকে উদ্ধৃত করেছেন। রাধারমন বাবু আরও যোগ করেছেন, “তার অধিনায়কত্বে ইসকন কলকাতার সন্ন্যাসীরা দীর্ঘ এই টেস্ট ম্যাচটি খেলতে এবং একসাথে কলকাতায় অনেক পরিবারের ক্ষুধার বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য প্ররোচিত হয়েছেন। আমি দাদার দুর্দান্ত অনুরাগী এবং ক্রিকেট মাঠে তার অনেক ইনিংস দেখেছি তবে প্রতিদিন ১০,০০০ লোককে খাওয়ানোর তাঁর ইনিংসটি সেরা। ইসকন গাঙ্গুলির প্রতি তার অগাধ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে”।

ভারতবর্ষেও আস্তে আস্তে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। গত ২৪ ঘন্টায় এই সংখ্যা সর্বাধিক। বর্তমানে বিভিন্ন জায়গা যেমন ইতালি আমেরিকা স্পেন সহ আরো অন্যান্য দেশ থেকে অভিযোগ আসছে যে স্বাস্থ্যকর্মী যেমন ডাক্তার নার্স সহ অন্যান্য দের উপযুক্ত সুরক্ষা সরঞ্জাম যথাযথ পাওয়া যাচ্ছে না। সেই কথা মাথায় রেখে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী তার ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে ডাক্তার নার্স ও স্বাস্থ্য কর্মীদের মধ্যে সুরক্ষা কিট বিলির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। প্রথম থেকে করোনার লড়াইয়ে লড়াই করা চিকিৎসক এবং নার্সদের জন্য বিশেষ প্রতিরক্ষামূলক কিট ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম (Personal Protection Equipment, PPE) আগামীকাল ৫ এপ্রিল থেকে বিতরণ করা হবে কারণ উনারা অত্যন্ত সংবেদনশীল পরিবেশে কাজ করে চলেছেন তাই উনাদের আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button