Cricket NewsInternational Cricket

T20 World Cup: অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে রিজওয়ান ও শোয়েব অনিশ্চিত, চিন্তায় পাক অধিনায়ক

সেমিফাইনাল ম্যাচে নামার আগেই শোয়েব মালিক ও মহম্মদ রিজওয়ানকে নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে পাক শিবিরে। যা ভাবাচ্ছে পাক অধিনায়ক বাবর আজমকে।

Advertisement

এবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আক্রমণাত্মক ব্যাটিং ও বোলিং নিয়ে পাকিস্তান ফুল ফর্মে রয়েছে। বৃহস্পতিবার সেমিফাইনাল ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ২২ গজে নামতে চলেছে পাকিস্তান। তবে সেমিফাইনাল ম্যাচে নামার আগেই শোয়েব মালিক ও মহম্মদ রিজওয়ানকে নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে পাক শিবিরে। যা ভাবাচ্ছে পাক অধিনায়ক বাবর আজমকে।

Advertisement

বিশ্বকাপের আগে বেশ কয়েক মাস ধরে অপমান সহ্য করতে হয়েছে পাক ক্রিকেটারদের। নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে পরপর পাক সফর বাতিল করেছিল নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ড। তবে এবার বিশ্বকাপে শুরু থেকেই সমস্ত অপমানের জবাব দিচ্ছে পাকিস্তান। বৃহস্পতিবারের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর জন্য রীতিমতো মুখিয়ে রয়েছেন পাক ক্রিকেটারা।

Advertisement

পাকিস্তানের ব্যাটিং কোচ ম্যাথু হেডেন এই প্রসঙ্গে বলেছেন, সেমিফাইনালে যদি অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে ফাইনালে উঠে যেতে পারে তাহলে বিশ্বক্রিকেটে পাকিস্তানকে আর কোন দেশ অশ্রদ্ধা করতে পারবে না। তবে এমন পরিস্থিতিতে সেমিফাইনালে ফর্মে থাকা মহম্মদ রিজওয়ান ও শোয়েব মালিককে নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে পাক শিবিরে।

শোনা যাচ্ছে, অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার ২২ গজে দেখা নাও মিলতে পারে এই দুই ব্যাটারের। এই মুহূর্তে তারা জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন বলেই জানা গিয়েছে। এবার বিশ্বকাপে শুরু থেকেই শোয়েব ও রিজওয়ান ধারাবাহিকভাবে ভালো খেলছেন। রিজওয়ান নিজের পারফর্ম্যান্স দিয়ে বুঝিয়ে দিয়েছেন তাকে দলে রেখে কোনো ভুল করেনি পাকিস্তান।

তবে এখন প্রশ্ন উঠছে, এই দুই ক্রিকেটার যদি বৃহস্পতিবার মাঠে নামেন তাহলে তাদের জায়গা পূরণ করতে কোন দুজনকে নামাবে পাক দল! এদিন এই বিষয় নিয়ে বেশ চিন্তিত দেখিয়েছে বাবর আজমকে।

বিরাট কোহলির মত বাবর আজমও নেটে রীতিমতো ঘাম ঝরাতে পছন্দ করেন। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার সাথে ম্যাচের আগে নিজের অনুশীলন ছেড়ে সতীর্থদের অনুশীলন দেখতে মনোযোগী হয়েছিলেন। এদিন অধিনায়ক ভুলভ্রান্তি নিয়েও অল্প কিছু পরামর্শ দিয়েছেন সতীর্থদের। শেষ পর্যন্ত পাকিস্তান বিশ্বকাপ ফাইনালে পৌঁছতে পারে কিনা এখন সেটাই দেখার।

এবার বিশ্বকাপে শাহিন আফ্রিদি পাক দলের অন্যতম ভরসার জায়গা। এদিন শাহিন আফ্রিদির দাদা রিয়াজ আফ্রিদি দেখা করতে এসেছিলেন ভাইয়ের সঙ্গে। ম্যাচ চলাকালীন ইয়র্কারগুলো ভালোভাবে দেওয়ার পরামর্শ দিয়ে গেছেন ভাইকে। বিশ্বকাপে শুরু থেকেই দারুন ছন্দে রয়েছে শাহিন আফ্রিদি। গোটা পাক ক্রিকেট সমর্থকরা তাকিয়ে রয়েছে তার দিকে। এবার মাঠে শেষ পর্যন্ত কি হবে সেটা সময় বলবে।

Related Articles

Back to top button