Cricket NewsIndian Cricket TeamInternational Cricket

কোহলিদের টেস্ট দলে সুযোগ পেলো এক নতুন মুখ, দেখুন এই অজানা খেলোয়াড় সম্পর্কে চাঞ্চল্যকর তথ্য

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ (ডব্লিউটিসি) ফাইনালের জন্য ভারতের দল এবং ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ঘোষণার পর থেকেই আরজান নাগওয়াসওয়ালা এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ডে। তিনি অভিমন্যু ঈশ্বরন, আবেশ খান এবং প্রসিধ কৃষ্ণের সাথে চার জন স্ট্যান্ডবাই খেলোয়াড়ের মধ্যে রয়েছেন। ঘরোয়া সার্কিট এবং ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের জন্য অনেকেই এই ত্রয়ী সম্পর্কে অবগত।

যাইহোক, আরজান নাগওয়াসওয়ালা নামটি অনেকের কাছে অজানা। আরজান একজন বাঁহাতি পেসার এবং সম্ভবত টি নটরাজনের পরিবর্ত হিসেবে তাঁকে রাখা হয়েছে। নটরাজন অস্ট্রেলিয়া সফরে টেস্ট অভিষেক করেছিলেন। আরজান নাগওয়াসওয়াল ১৯৯৭ সালের ১৭ ই অক্টোবর গুজরাটের সুরাটে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাড়িতে কোনও ক্রিকেট পটভূমি ছিল না তবে অল্প বয়সে তার ভাই ভিসপির কাছ থেকে খেলার প্রাথমিক বিষয়গুলি শিখেছিলেন এবং বোলিং এর উপর তাঁর ভালবাসা জন্মায়।

আরজান নাগওয়াসওয়ালা প্রথম ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে লিস্ট A ক্রিকেটে রাজস্থানের বিপক্ষে গুজরাটের হয়ে অভিষেক করেন যেখানে তিনি ৮ ওভারে ২/৩৪ এর চিত্তাকর্ষক পরিসংখ্যান নিয়ে ফিরে আসেন। ২০১৮-১৯ মরশুমে শক্তিশালী মুম্বাই দলের বিপক্ষে পাঁচ উইকেট লাভের জন্য আর্জান খ্যাতি অর্জন করেন। তিনি সূর্যকুমার যাদব, আরমান জাফর, আদিত্য তারে, ধ্রুমিল মাতকার এবং সিদ্ধেশ লাডের উইকেট তোলেন। মুম্বাইয়ের ব্যাটিংয়ের পতন ঘটান। বছরের শেষের দিকে, নভেম্বরে, তরুণ বরোদার বিপক্ষে প্রথম শ্রেণীর অভিষেক করেন কিন্তু তিনি যে ২০ ওভারে বোলিং করেন তাতে দুই ইনিংস জুড়ে মাত্র একটি উইকেট নিতে পারেন।

পরের বছর, ২০১৯ সালে, তিনি তামিলনাড়ুর বিপক্ষে সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতে টি-২০ তে আত্মপ্রকাশ করেন এবং তার চার ওভারে ৩/১১ এর চমকপ্রদ পরিসংখ্যান নিয়ে ফিরে আসেন। বাঁহাতি পেসার মুরলী বিজয়, হরি নিশানথ ও রবি অশ্বিনের গুরুত্বপূর্ণ উইকেট তুলে নেন। ২০১৯-২০ সালে রঞ্জি ট্রফি মরসুমে তিনি গুজরাটের হয়ে বল হাতে আট ম্যাচে ৪১ উইকেট তুলে নিয়ে লাইমলাইটে এসেছিলেন। আরজান নাগওয়াসওয়ালা সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতে ৯ টই উইকেট তুলে নিয়ে একটি চাঞ্চল্যকর পারফরম্যান্স করেছিলেন। ৭ মে, ২০২১ তারিখে আরজানকে দেশের সেরা খেলোয়াড়দের সাথে থাকার জন্য জাতীয় নির্বাচকরা তাকে ডব্লিউটিসি ফাইনাল এবং পরবর্তী ইংল্যান্ড সিরিজের স্ট্যান্ডবাই খেলোয়াড় হিসেবে ভারতের টেস্ট দলে বেছে নেন।

আরও পড়ুন

Back to top button