IPL League

আসন্ন আইপিএল নিলামে এই ৫ জন খেলোয়াড়কে কিনতে বিপুল অর্থ বিনিয়োগ করতে চলেছেন কেকেআর

কলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর) দুইবার ট্রফি জিতে আইপিএলের সফল ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলির একটি হয়ে উঠেছে। যাইহোক, তারা 2014 সাল থেকে ট্রফি জিততে পারেনি এবং গত মরশুমে টেবিলের পঞ্চম স্থান শেষ করেছে তারা। এই বছর তারা ট্রফি জিততে সবকিছু ঠিক রাখতে চাইবে। কেকেআর-এর কাছে মাত্র ১০.৭৫ কোটি টাকার পার্স মানি আছে ৮টি খেলোয়াড়দের জন্য। তাদের বাজেট দক্ষতার সাথে ব্যবহার করতে হবে কারণ এই পার্স মানি দিয়ে তাদের দলের সকল শূন্যস্থান পূরণ করা সহজ হবে না। কেকেআর এ বর্তমানে ইওইন মর্গান, প্যাট কামিন্স, লকি ফার্গুসন, আন্দ্রে রাসেল, সুনীল নারিন এবং টিম সিফার্ট তাদের বিদেশী খেলোয়াড় হিসেবে আছে। তারা দলকে আরো পরিপূর্ণভাবে দেখতে চাইবে।ফলে অবশ্যই রাসেল এবং নারিনের ব্যাকআপে কাজ করতে পারে এমন প্লেয়ার দলে নেবে। এবং একজন বিদেশী ওপেনারের জন্যও যেতে পারে।

এই ৫ জন বিদেশী খেলোয়াড়কে নিলামে টার্গেট করা হতে পারে কেকেআর :

১. তানভীর সংঘঃ

তানভীর সঙ্ঘ এই মরশুমের বিগ ব্যাশ লীগ শুরুর আগে বেশ অজানা কিশোর ছিল। কিন্তু সিডনি থান্ডার খেলোয়াড় এই লীগে নিজের প্রতিভা দেখিয়েছেন। তিনি এখন অস্ট্রেলিয়ার টি২০আই স্কোয়াডের অংশ এবং তিনি অবশ্যই নিলামের আগে কয়েকটি আইপিএল দলের জন্য একটি টার্গেট হতে যাচ্ছেন। ১৯ বছর বয়সী ১৩.৫ স্ট্রাইক রেটে ১৫ খেলায় ২১ উইকেট তুলে নেন। এই লেগ স্পিনার গত বছরের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে বেশ চিত্তাকর্ষক ছিলেন যেখানে তিনি ১৫ উইকেট পেয়েছিলেন। সুনীল নারিনের ব্যাটিং গত মরশুমে কয়েক ম্যাচে ভালো হয়নি, এবং এর ফলে কেকেআর তাকে প্রধানত বোলার হিসেবে ব্যবহার করছে। যাইহোক, বল সঙ্গে তার প্রত্যাবর্তন করেও গত ২ মরশুমে খারাপ ফল দিয়েছেন তিনি। তাই, ফ্র্যাঞ্চাইজি কিছু প্রতিযোগিতার জন্য সঙ্ঘ আনতে চাইতে পারে।

২. কলিন মুনরোঃ

কলিন মুনরোর মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে ধ্বংসাত্মক ব্যাটসম্যানদের একজন হওয়ার ক্ষমতা আছে। বামহাতি এই ব্যাটসম্যানের ব্যাটিং শৈলী প্রায়ই বিপক্ষ দলের জন্য সমস্যা সৃষ্টি করেছে। তিনি প্রায় ৩০ গড়ে ২৮৫ টি T20 তে ৬৯৫৬ রান করেছেন এবং তার স্ট্রাইক রেট 143.24 ব্যতিক্রমী। নিউজিল্যান্ডে চলতি বিবিএল-এ দুর্দান্ত ফর্ম দেখিয়েছে এবং ১৪ ইনিংসে ৪৪১ রান করেছে। যদিও শুভমান গিল গত মৌসুমে অর্ডারশীর্ষে একটি ভাল খেলেছিলেন অন্যান্য ওপেনাররা বেশ অসঙ্গতিপূর্ণ ছিল। যদিও তাদের টিম সিফার্ট আছে, তিনি ভারতে খেলেননি এবং কেকেআর তাদের প্রথম পছন্দের বিদেশী ওপেনার হিসেবে এমন অনভিজ্ঞ খেলোয়াড় থাকার ঝুঁকি নিতে চায় না। মুনরো সম্ভবত ব্যাকআপ হিসেবে সিফার্টের পরিবর্তে সবচেয়ে ভালো বিকল্প হবে। কেকেআর প্রায়ই এমন খেলোয়াড় কিনেছে যারা টিকেআর-এর খেলেছেন।

৩. সাকিব আল হাসানঃ

সাকিব আল হাসান বর্তমানে বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার, এবং তাকে তাদের শর্টলিস্টে রাখতে চাইবে। তিনি একজন নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান এবং একজন চমৎকার বোলার, বাংলাদেশের এই অলরাউন্ডার তার বহুমুখীতার কারণে অধিকাংশ দলের জন্য একটি মূল্যবান খেলোয়াড় হবে।প্রাক্তন এসআরএইচ খেলোয়াড় ৫০৮০ রান করেছেন এবং ৩১৭ টি T20s এর মধ্যে ৩৬০ টি উইকেট তুলে নিয়েছেন। ৩৩ বছর বয়সী এই প্লেয়ার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ১১৩ রান করে ৬ উইকেট তুলে নেন। এই মরশুমে তিনি কেকেআর-এর জন্য অন্যতম সেরা খেলোয়াড় হতে পারেন। সাকিব অতীতে নাইট রাইডার্সের হয়েও খেলেছেন।

৪. মুজিব উর রহমানঃ

সাম্প্রতিক কালে আফগানিস্তান থেকে আসা অনেক রহস্যময় স্পিনারদের মধ্যে একজন হলেন মুজিব উর রহমান, এখন পর্যন্ত খুব ভালো ক্যারিয়ার স্ট্যাট রয়েছে তাঁর। ১৯ বছর বয়সী এই তরুণ অফ-স্পিন এবং লেগ স্পিন উভয় বোলিং করে। প্রাক্তন KXIP বোলার এমনকি পাওয়ারপ্লে তে বোলিং করতে পারেন এবং অবশ্যই জানেন কিভাবে শুরুতে রান প্রবাহ সীমিত করতে হয়। তিনি ২০.৬ স্ট্রাইক রেটে ১৩২ টি খেলায় ১৪৫ উইকেট তুলে নিয়েছেন। বিগ ব্যাশ ৮ টি খেলায় ১৪ টি উইকেট তুলে নেন।এছাড়াও তিনি হোবার্ট হ্যারিকেনের বিরুদ্ধে পাঁচ উইকেট তুলে নেন। বস্তুত, মুজিব বর্তমান ফর্মের উপর ভিত্তি করে সুনীল নারিনকে টপকে তিনি কেকেআর এর প্রথম একাদশে প্রবেশ করতে পারেন।

৫. বেন কাটিংঃ

আন্দ্রে রাসেলের জন্য একটি ব্যাকআপ কেনা নিঃসন্দেহে কেকেআর-এর সবচেয়ে বড় অগ্রাধিকার হবে নিলামে। সুতরাং এই ভূমিকার জন্য এমন অনেক খেলোয়াড় নেই যিনি বেন কাটিং এর চেয়ে ভালো হবেন। সূত্রানুযায়ী এই নিলামে তিনি সম্ভবত বেশ কম দামেই উপলব্ধ থাকবেন। অস্ট্রেলিয়ান এই খেলোয়য়ার ১৫০.১৯ চমৎকার স্ট্রাইক রেটে ১৬৬ খেলায় ২৩১৯ রান করেছেন। তিনি ২১.১ স্ট্রাইক রেটে ১২৭ টি উইকেট তুলে নিয়েছেন। কাটিং এর আগে আইপিএলে খেলেছেন এবং এমনকি 2016 ফাইনালে সানরাইজার্স এর প্লেয়ার হিসেবে ম্যান অফ দ্য ম্যাচ পুরস্কার জিতেছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button