IPL 2020Cricket

ডিভিলিয়ার্সের দুরন্ত ব্যাটিং, বোলারদের অসাধারণ পারফরম্যান্স, আরসিবির সামনে খরকুটোর মতো উড়ে গেল কেকেআর

পাঞ্জাব এবং চেন্নাই, ‌দুই ম্যাচের ডেথ ওভারে ভাল বোলিং জয় এনে দিয়েছিল কলকাতা নাইট রাইডার্সকে। কিন্তু শারজার ছোট মাঠে বিরাট-ডি’‌ভিলিয়ার্সদের কাছে কার্যত অসহায় আত্মসমর্পণ করল নাইটরা। ব্যাটে-বলে দুরন্ত খেলল আরসিবি। ৮২ রানে নাইটদের হারিয়ে লিগ শীর্ষে থাকা দিল্লি এবং মুম্বইকে পয়েন্টের বিচারে ছুঁয়ে ফেলল বিরাট কোহলির দল।

এদিন টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন কোহলি। উলটোদিকে বোলিং অ্যাকশনের উপর প্রশ্ন ওঠায় দলের অন্যতম ভরসা সুনীল নারিনকে ছাড়াই মাঠে নামেন কার্তিকরা। ফলে প্রথম থেকেই কিছুটা যেন চাপমুক্ত হয়ে ব্যাটিং করতে দেখা যায় দেবদূত পাড়িক্কল-অ্যারন ফিঞ্চ জুটিকে। এরপর কেকেআর বোলারদের উপর দিয়ে কার্যত ছড়ি ঘোরাতে থাকেন এবি ডি’‌ভিলিয়ার্স। বরুণ চক্রবর্তী বাদে এমন কোনও নাইট বোলার ছিল না, যাঁকে ডিভিলিয়ার্স ছেড়ে দেননি। শেষপর্যন্ত মাত্র ৩৩ বলে ৫টি বাউন্ডারি ও ৬টি ওভারবাউন্ডারির সাহায্যে ৭৩ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন এই প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান। ডিভিলিয়ার্সের ঝড়ের দিন শুধু ইনিংস রোটেটের কাজটাই করেছেন বিরাট। ২৮ বলে অপরাজিত থাকেন ৩৩ রানে। কেকেআরের বোলারদের মধ্যে বরুণ কোনও উইকেট না পেলেও দুর্দান্ত বোলিং করেন। ডি’‌ভিলিয়ার্সের ব্যাটে ভর করেই নির্ধারিত ২০ ওভারে মাত্র দু’‌উইকেটে ১৯৪ রান তোলে আরসিবি। শেষ ৫ ওভারে বেঙ্গালুরুর সংগ্রহ ৮৩ রান।

১৯৫ রান তাড়া করতে নেমে এদিন পুরোপুরি ব্যর্থ কেকেআর ব্যাটিং লাইন আপ। নারিনের জায়গায় সুযোগ পাওয়া টম ব্যান্টন করলেন ৮ রান। ব্যর্থ রানা (‌৯), কার্তিক (১‌), মর্গ্যান (‌৮), রাসেল (১৬‌)। শুভমন গিল আপ্রাণ চেষ্টা করলেও ৩৪ রানে রানআউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরতে হয় তাঁকে। চেষ্টা করেও চাপের মধ্যে ১০ বলে ১৬ রানের বেশি করতে পারেননি আন্দ্রে রাসেল। শেষপর্যন্ত ৮২ রান দূরেই থেমে যায় কেকেআরের ইনিংস। ম্যাচর সেরা স্বাভাবিকভাবেই হন এ বি ডিভিলিয়ার্স।
এই ম্যাচে আরসিবির বোলারদের‌ অসাধারণ বোলিং এর সামনে এদিন কোনও নাইট ব্যাটসম্যানই মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেনি। বিশেষ করে চাহাল এবং সুন্দরের স্পিন জুটি। এই দু’‌জনে মিলে মোট আট ওভার বল করে ৩২ রান দেন। আর তুলে নেন নাইটদের মূল্যবান তিনটি উইকেট। আরসিবির অন্য বোলাররাও এদিন দুর্দান্ত বোলিং করেন। ম্যাচ হারায় ৭ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট সংগ্রহ করে লিগ টেবিলে চতুর্থ স্থানে নেমে গেল কলকাতা নাইট রাইডার্স।

Related Articles

Back to top button