IPL 2020Cricket

সিএসকে নিয়ে কোচ ফ্লেমিং যে ভয়ঙ্কর সত্যিটা তুলে ধরলেন

এবারের আইপিএলের মত এতো খারাপ অবস্থা চেন্নাই সুপার কিংসের আগে কখনো হয়নি। বর্তমানে তারা লিগ টেবিলে সবার শেষে রয়েছে। প্লে অফে আশা পুরোপুরি শেষ না হলেও এখনো খাতায় কলমে টিকে রয়েছে। তবে হেড কোচ স্টিফেন ফ্লেমিং ভয়ংকর সত্যিটা খোলামেলাভাবেই তুলে ধরলেন। জানিয়ে দিলেন, এবারের মত টুর্নামেন্ট অভিযান শেষ। সাতটা হার। আর জয় মাত্র ৩টি ম্যাচে।  আইপিএলের ইতিহাসে প্রথমবার সিএসকে শেষ চারে না খেলার মত পরস্থিতি তৈরি হয়েছে। রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে সোমবার হারের পরেই ধোনিদের প্লে অফে ওঠার সম্ভবনা কার্যত শেষ হয়ে যায়।

তবে প্লে অফে ওঠার যে ক্ষীণ আশা রয়েছে সেই দিকে কক্ষ না দিয়ে ফ্লেমিং জানিয়ে দিলেন, ‘লিগ টেবিলের দিকে তাকালেই স্পষ্ট দলের অক্সিজেন শেষ হয়ে গিয়েছে। যদি পরপর তিন বছরের দিকে তাকানো যায়- প্রথম বছরে ট্রফি জিতেছিলাম। দ্বিতীয় বছরে শেষ বলে হেরে বসি। আমরা জানতাম বয়স্ক দল নিয়ে তৃতীয় বছরে লড়াইটা কঠিন হবে। দুবাই আমাদের সামনে নতুন চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে।’ এরপরে সিএসকের কিউয়ি কোচ আরো বলেন, ‘দলের মানসিকতা একদম তলানিতে ঠেকেছে। বেশ কয়েকটা ক্লোজ ম্যাচে আমরা হেরে বসি। অনেক ম্যাচে স্রেফ পরাস্ত হয়েছি। আমরা জানতাম রাজস্থান রয়্যালস ম্যাচ আমাদের কাছে কতটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল।’

সিএসকে সোমবারের হারের পরে আপাতত লিগ তালিকায় সর্বশেষ অষ্টম স্থানে। তবে এখনো সিএসকের আশা শেষ হয়ে যায়নি। টুর্নামেন্টের ফরম্যাট অনুযায়ী এখনো প্লে অফে খেলার সামান্য হলেও সুযোগ রয়েছে ধোনিদের সামনে। কীভাবে? ছয় পয়েন্ট নিয়ে চেন্নাই এখন তলানিতে। তবে এখনো বাকি চার ম্যাচ জিতলে এবং অন্যদলের বাকি ম্যাচের কিছু যদি সিএসকের সমীকরণের সঙ্গে সঙ্গত করে, তাহলে চেন্নাই সুপার কিংসকে ফের একবার দেখা যাবে শেষ চারে।

তবে দলের সামান্যতম সম্ভবনাও দেখছেন না ফ্লেমিং। জানিয়ে দেন, ‘এখনো প্লে অফে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে যখন নিজের দলের ফর্ম বদলে ফেলার প্রসঙ্গ কিংবা অন্য দলের ফলাফলের উপর নির্ভর করে থাকতে হয় তখন পজিটিভ থাকা আসলে ভীষণই শক্ত।’ চেন্নাই সুপার কিংসের পরবর্তী ম্যাচ আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে। সেই ম্যাচে হারা মানেই চেন্নাইয়ের প্লে অফার আশা পুরোপুরি শেষ হয়ে যাবে।

Related Articles

Back to top button