IPL 2020Cricket

রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে ২ রানে জয়ী কলকাতা নাইট রাইডার্স

তীরে এসে তরী ডুবল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের। কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে কে এল রাহুল ও মায়াঙ্ক আগারওয়াল প্রথম উইকেটে ১১৫ রানের পার্টনারশিপ করার পরও ২ রানে হারতে হল তাদের। শেষ ওভারে জয়ের জন্য পাঞ্জাবের দরকার ছিল ১৪ রান। শেষ বলে করতে হত ৬ রান। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল আপ্রাণ চেষ্টা করেও দলকে জেতাতে ব্যর্থ হলেন। সুনীল নারিনের শেষ বলটায় ম্যাক্সওয়েল ৬ এর জন্য মারলেও বাউন্ডারির একটু আগে বলটা পড়ায় ২ রানে ম্যাচ জিতে লিগ ৬ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট সংগ্রহ করে লিগ টেবিলের তৃতীয় স্থানে উঠে এল কেকেআর। আর ম্যাচ হেরে অষ্টম স্থানেই রইল রাহুলের দল।
এদিন টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামা কলকাতা নাইট রাইডার্সের শুরুটা একদমই ভালো হয়নি। শেষ ম্যাচে ৮১ রান করা রাহুল ত্রিপাঠী এদিন ১০ বলে মাত্র ৪ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরলেন। ২ রান করে রান আউট হন নীতিশ রানা। ইয়ন মরগ্যান শুরুটা ভাল করেও ২৪ রানে আউট হন। তবে একদিকে বুঝেসুজে খেলছিলেন শুভমান গিল। পাশে পেলেন নাইট অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক কে। গিল যেমন ইনিংস রোটেট করার দায়িত্ব নেন অনদ্যিকে আক্রমণাত্মক মেজাজে এদিন শুরু থেকেই ব্যাট করতে থাকেন কার্তিক। ১৭.৫ ওভারে ৫৭ করে গিল আউট হলেও কার্তিক ধামাকাদার ব্যাটিং অব্যাহত থাকে। তাঁর ২৯ বলে ৫৮ রানের সৌজন্যে কলকাতা নাইট রাইডার্স ২০ ওভারে সংগ্রহ করে ৬ উইকেটে ১৬৪ রান।
১৬৫ রানের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে খেলতে নেমে কে এল রাহুল এবং মায়াঙ্ক আগারওয়াল শুরুটা ভালোই করেন। ৮৬ বল পর্যন্ত দু’জনে প্রথম উইকেটের জুটিতে ১১৫ রান সংগ্রহ করার পর ৫৬ করে মায়াঙ্ক আউট হন। এরপর নিকোলাস পুরান ব্যাট করতে নেমে তাড়াতাড়ি ম্যাচ শেষ করার লক্ষ্যে শুরু থেকেই আগ্রাসীভাবে ব্যাট করতে থাকেন। কিন্তু হুট করে বড় শট মেরে ঝুঁকি নিতে গিয়ে ১০ বলে ১৬ রান করে প্যাভিলয়নে ফেরেন তিনি। পুরান-এর আউটের পর উইকেটেরক্ষক ব্যাটসম্যান সিমরন সিং ও জলদি আউট হয়ে যান। সিমরনের ২ রান পরই প্যাভিলিয়নে ফেরেন অধিনায়ক রাহুল। ৫৮ বলে ৭৪ রানের একটি লড়াকু ইনিংস খেলেন তিনি। তবে শেষ ভরসা ছিল গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। এবারের আইপিএলে ফর্মে না থাকা ম্যাক্সওয়েল ৫ বলে ১০ রান করলেও দলকে জেতাতে ব্যর্থ হন। রূদ্ধশ্বাস ম্যাচে ২ রানে জয় পায় কেকেআর। ম্যাচের সেরা দীনেশ কার্তিক।

Related Articles

Back to top button