IPL 2020Cricket

দিল্লিকে হারিয়ে আইপিএলে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন মুম্বই

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের  ১৩ তম আসরের শিরোপা জিতল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। দিল্লি ক্যাপিটালসকে হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বার ও সব মিলিয়ে রেকর্ড পঞ্চমবারের মতো আইপিএলে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার কৃতিত্ব অর্জন করল রোহিত শর্মার দল। মঙ্গলবার দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত ফাইনালে ৫ উইকেটে জয় তুলে নেয় মুম্বই।

ফাইনালের হাইভোল্টেজ লড়াইয়ে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন দিল্লি ক্যাপিটালসের অধিনায়ক শ্রেয়াস আইয়ার।শুরুতেই  ট্রেন্ট বোল্ট ও জয়ন্ত যাদবের বোলিং দাপটে দিশাহীন হয়ে পরে দিল্লি। একটা সময় ৩.৩ ওভারে ২২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলে তারা। সেখান থেকে ইনিংসের হাল ধরেন ঋষভ পন্থ ও শ্রেয়াস আইয়ার। দু’জনে মিলে  ৯৬ রানে পার্টনারশিপ করার পর ৩৮ বলে ৫৬ রানে আউট হন ঋষভ। এবারের আইপিএলে একটাও অর্ধশতরান না করতে পারা পন্থ ফাইনালের দিন নজরকাড়া পারফরম্যান্স করেন। পন্থের আউটের পর নিয়মিত ব্যবধানে উইকেটের পতন হলেও একদিকে আগলে রাখনে শ্রেয়াস। তার ৫০ বলে করা অপরাজিত ৬৫ রানের ওপর ভর করে দিল্লি ২০ ওভারে সংগ্রহ করে ১৫৬/৭। মুম্বইয়ের পক্ষে ট্রেন্ট বোল্ট ৩০ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন। ২৯ রানে ২ উইকেট নেন ন্যাথান কুল্টার-নাইল। ১টি উইকেট জয়ন্ত যাদবের।

১৫৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে রোহিত শর্মা শুরু থেকেই দুর্দান্ত ব্যাটিং করেন। ওপেনিং জুটিতে কুইন্টন ডি ককের সঙ্গে ৪ ওভারেই ৪৫ রান তুলে ফেলেন দুজন। পঞ্চম ওভারের শুরুতেই অবশ্য ডি কক ফিরে যান ১২ বলে ২০ রান করে। তবে রোহিতের ব্যাট অবশ্য থেমে থাকেনি। শেষ পর্যন্ত ৫১ বলে ৫টি বাউন্ডারি ও ৪টি ওভারবাউন্ডারির সাহায্যে ৬৮ রান করে আউট হন তিনি। ততক্ষণে মুম্বাই অবশ্য জয়ের পথে অনেক দূর এগিয়ে গেছে। ইশান কিষান ১৯ বলে ৩৩ রানে অপরাজিত থেকে ম্যাচ শেষ করেন। ৮ বল বাকী থাকতেই ম্যাচ জিতে যায় রোহিত শর্মার দল। এবারের আইপিএলের দিল্লির দুই সফল পেসার ফাইনালে সেভাবে দাগ কাটতে পারেননি। ৩ ওভারে ৩২ রান দিয়ে মাত্র ১ উইকেট পান কাগিসো রাবাদা। এনরিচ নর্টজে ১৬ বলে ২৫ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন। ১টি উইকেট পান মার্কাস স্টোইনিস। ফাইনালে দুরন্ত বল করে ম্যাচের সেরা হন ট্রেন্ট বোল্ট।

 

 

Related Articles

Back to top button