IPL 2020Cricket

দেখে নিন কলকাতা নাইট রাইডার্স ও দিল্লি ক্যাপিটালস ম্যাচের সম্ভাব্য প্রথম একাদশ

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে লজ্জাজনক হারের পর কলকাতা নাইট রাইডার্স প্লে অফে ওঠার লড়াইয়ে ধাক্কা খেয়েছে। সেই হারের ধাক্কা সামলে আজ আরো একটি কঠিন প্রতিপক্ষ দিল্লি ক্যাপিটালস এর মুখোমুখি হচ্ছে নাইটরা। দিল্লির বিরুদ্ধে হারা মানেই আগামী ৩ ম্যাচের ৩টিতেই জিতবে হবে এরকম একটা পরিস্থিতি চলে আসবে ইয়ন মর্গ্যানের দলের কাছে।

এরকম কোনো পরিস্থিতি একেবারেই হতে দিতে নারাজ আন্দ্রে রাসেল। শুক্রবার দুপুরে দলের সঙ্গে অনুশীলনে যোগ দেন রাসেল। অধিনায়ক মর্গ্যান তাঁকে দায়িত্ব দেন সতীর্থদের উদ্বুদ্ধ করার। দলীয় বৈঠকে এসে রাসেল জানিয়ে দেন, এইভাবে প্রতিযোগিতা থেকে ছিটকে যেতে তিনি আসেননি। এসেছেন লড়াই করতে, জিততে। দিল্লির বিরুদ্ধে নামার আগে তাঁর বার্তা, ‘এক ইঞ্চিও জায়গা ছাড়া চলবে না।’ নাইট সূত্রে খবর, হাঁটু ও হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট প্রায় সেরেই গিয়েছে রাসেলের। নেটে বল করতেও কোনও সমস্যা হয়নি। দিল্লির বিরুদ্ধে প্রথম একাদশে তাঁকে দেখার জন্য অপেক্ষা করে আছেন ভক্তেরা। মরুশহরে রাসেল-ঝড় দেখার সুযোগ হয়নি কারও। ৯ ম্যাচ খেলে করেছেন মাত্র ৯২ রান। কিন্তু নাইট শিবির যে রাসেল-নির্ভরতা এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি, তা গত ম্যাচেই স্পষ্ট।

দিল্লির বিরুদ্ধে বড় পরীক্ষা নাইটদের উপরের সারির ব্যাটসম্যানদেরও। শুভমন গিল, রাহুল ত্রিপাঠী ও নীতীশ রানারা শুরুটা ভাল করলেও সেটাকে বড় স্কোরে কনভার্ট করতে ব্যর্থ হচ্ছেন। গত ম্যাচে মহম্মদ সিরাজের গতি ও সুইংয়েই বেসামাল নাইটদের টপ-অর্ডার। আজ কাগিসো রাবাডা ও এনরিকে নর্টেজের এক্সপ্রেস গতির বিরুদ্ধে পরীক্ষা শুভমনদের। তাঁদের পরিসংখ্যানই বলে দিচ্ছে, এ বারের আইপিএলে কতটা ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার এই পেস-জুটি। ১০ ম্যাচে ২১ উইকেট রাবাডার। উইকেট সংগ্রাহকদের তালিকায় তিনিই শীর্ষে। এনরিকে নর্টেজের উইকেটসংখ্যা ১২।  স্পিন বিভাগকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন আর অশ্বিন। সঙ্গী হিসেবে পাচ্ছেন অক্ষর পটেলকে। যিনি বোলিংয়ের পাশাপাশি ব্যাট হাতে চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে ম্যাচ জিতিয়েছেন।

এছাড়া ওপেনিংয়ে নতুন স্বপ্ন দেখাচ্ছেন শিখর ধাওয়ান। শেষ দু’ম্যাচে দু’টি সেঞ্চুরি করে সমালোচকদের মুখ বন্ধ করে দিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেটের ‘গব্বর’। এই ম্যাচেও নাইটদের বিরুদ্ধে নিজের সেরা পারফরম্যান্স করে দলকে দু পয়েন্ট এনে দিয়ে প্লে অফে তুলতে চাইবেন ধাওয়ান।

নাইটদের বোলিংয়ের কথা বললে লকি ফার্গুসনই একমাত্র সেরা বল করছেন। ১৫ কোটির প্যাট কামিন্স ইকোনোমিক বল করলেও উইকেট পাচ্ছেন না। স্পিন বিভাগে বরুন চক্রবর্তী সেরকম এফেকটিভ নন। কুলদীপ যাদবকে শেষ দুই ম্যাচে খেলালেও শেষ ম্যাচে তিনি বোলিং পাননি। অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যানের অধিনায়কত্ব নিয়েও কিছু প্রশ্ন উঠছে।

একনজরে দেখে নেওয়া যাক দু’দলের সম্ভাব্য প্রথম একাদশ 

কলকাতা নাইট রাইডার্স : 

শুভমান গিল, রাহুল ত্রিপাঠী, নীতীশ রানা, দীনেশ কার্তিক (উইকেটরক্ষক), ইয়ন মর্গ্যান (অধিনায়ক), আন্দ্রে রাসেল / টম ব্যানটন, প্যাট কামিন্স, সুনীল নারিন, লকি ফার্গুসন, কুলদীপ যাদব, প্রসিধ কৃষ্ণ, বরুন চক্রবর্তী

দিল্লি ক্যাপিটালস :

পৃথ্বী শ, শিখর ধাওয়ান, শ্রেয়াস আইয়ার (অধিনায়ক), ঋষভ পন্থ (উইকেটরক্ষক), মার্কাস স্টোইনিস , সিমরন হেটমায়ার, অক্ষর প্যাটেল, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, কাগিসো রাবাদা, এনরিকে নোর্টিজে, তুষার দেশপান্ডে

Related Articles

Back to top button