IPL 2020Cricket

পাঞ্জাবকে উড়িয়ে প্লে-অফের লড়াইয়ে টিকে রইল রাজস্থান

কিংস ইলেভেন পঞ্জাবকে ৭ উইকেটে হারিয়ে দিয়ে আইপিএলের প্লে-অফে ওঠার লড়াইটাকে আরও জমিয়ে দিল রাজস্থান রয়্যালস। ২ ম্যাচ বাকি থাকতে একমাত্র মুম্বই ইন্ডিয়ান্স প্লে অফে ওঠা নিশ্চিত করে ফেলেছে। প্লে-অফের লড়াই থেকে ছিটকে গিয়েছে চেন্নাই সুপার কিংস। বাকি ৬ দলের মধ্যে যে কেউই যেতে পারে প্লে-অফে। তিনটি জায়গার জন্য লড়াই ৬টি দলের।

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু ও দিল্লি ক্যাপিটালস, দুই দলই দাঁড়িয়ে ১৪ পয়েন্টে আর দুটো করে ম্যাচ বাকি থাকায় দৌড়ে বেশ এগিয়ে। কিংস ইলেভেন পঞ্জাব, রাজস্থান রয়্যালস ও কলকাতা নাইট রাইডার্স ১৩ ম্যাচ খেলে ১২ পয়েন্টে দাঁড়িয়ে। ১২ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট সানরাইজার্স হায়দরাবাদের। শুক্রবার রাজস্থান জেতায় সকলেরই সুযোগ বাড়ল। তবে কেকেআরকে শেষ ম্যাচে বড় ব্যবধানে জিততে হবে। কারণ, শাহরুখ খানের দল নেট রান রেটে অনেটাই পিছিয়ে রয়েছে।

এদিন বেন স্টোকস রাজস্থানের জয়ের নায়ক। প্রথমে বল হাতে নিলেন দুই উইকেট, ধরলেন একটি অসাধারণ ক্যাচ। কে এল রাহুল ও নিকলাস পুরান, তাঁর শিকারের ঝুলিতে দুই বড় নাম। তার আগে জোফ্রা আর্চারের দ্বিতীয় বলে গত ম্যাচে অর্ধশতরান করে পাঞ্জাবকে জেতানো মনদীপ সিংয়ের অসাধারণ একটি ক্যাচ ধরলেন। পরে ইনিংস ওপেন করতে নেমে ২৬ বলে ঝোড়ো ৫০ রান করেন। ১৫ বল বাকি থাকতে পঞ্জাবের ১৮৫/৪ পেরিয়ে যায় রাজস্থান মাত্র তিন উইকেট হারিয়ে। স্টোকসের দাপটে ক্রিস গেইলের ৯৯ রানের ইনিংসও বিবর্ণ হয়ে গেল।

টুর্নামেন্টের শুরুর দিকে তিনি প্রথম একাদশে সুযোগ পাচ্ছিলেন না। সেই ক্রিস গেইল এখন ব্যাট হাতে বিধ্বংসী ফর্মে রয়েছেন। কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের প্রধান ভরসা হয়ে উঠেছেন। কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে ২৯ বলে ৫১ রান করার পর শুক্রবার তিন নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ফের ঝোড়ো ইনিংস ক্যারিবিয়ান মহাতারকার। তবে মাত্র ১ রানের জন্য সেঞ্চুরি হাতছাড়া হয়েছে তাঁর। ৬৩ বলে ৯৯ রান করে জোফ্রা আর্চারের বলে বোল্ড হয়ে যান গেইল। গেইলের ব্যাটিং ঝড়ের সৌজন্যে রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে প্রথমে ব্যাট করে পঞ্জাব তুলেছিল ১৮৫/৪।গেইল ছাড়া ৪১ বলে ৪৬ রান করেন কে এল রাহুল। ৩টি ওভারবাউন্ডারির সাহায্যে ১০ বলে ২২ রান করেন নিকোলাস পুরান। রাজস্থানের হয়ে স্টোকস ছাড়াও রান পেয়েছেন সঞ্জু স্যামসন (২৫ বলে ৪৮), স্টিভ স্মিথ (২০ বলে অপরাজিত ৩১), রবিন উথাপ্পা (২৩ বলে ৩০) ও জশ বাটলার (১১ বলে অপরাজিত ২২)। স্বাভাবিকভাবেই এই ম্যাচের সেরা হলেন স্টোকস।

Related Articles

Back to top button